Sale!

রবীন্দ্রচিঠি গ্রন্থমালা ৪

রায়বাহাদুর দীনেশচন্দ্র সেন (০৩.১১.১৮৬৬-২০.১১.১৯৩৯) বাংলা ভাষা ও সাহিত্য, বিশেষত বাংলা লোকসাহিত্যের সংগ্রাহক, প্রথম পথিকৃৎ ও সার্থক গবেষক। জন্ম : মানিকগঞ্জের বগজুড়ী গ্রামে, মাতুলালয়ে। পিতা : ঈশ্বরচন্দ্র সেন নবব্রাহ্মমতের অনুসারী ছিলেন। মাতা : রূপলতা দেবী। ঢাকা কলেজ থেকে বিএ পাস করে কুমিল্লায় কিছুদিন শিক্ষকতা করেন। পরবর্তী জীবনে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের রামতনু লাহিড়ী অধ্যাপক ও বাংলা বিভাগের অধ্যক্ষ। সরকার থেকে ‘রায়বাহাদুর’ উপাধি এবং ইংল্যান্ডের যুবরাজের ভারত-আগমন উপলক্ষে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি.লিট. উপাধি লাভ করেন। উল্লেখযোগ্য বই : বঙ্গভাষা ও সাহিত্য (১৮৯৬), ঘরের কথা ও যুগসাহিত্য (১৯২২), বাংলা পদাবলী মাধুর্য (১৯৩৭), প্রাচীন বঙ্গসাহিত্যে মুসলমানের অবদান (১৯৪০), বৃহৎ বঙ্গ, বৈষ্ণব লিটারেচার, ফোক লিটারেচার অব বেঙ্গল, হিস্ট্রি অব বেঙ্গলি ল্যাংগুয়েজ অ্যান্ড লিটারেচার ইত্যাদি। ১৯২৩-৩২ খ্রিস্টাব্দে মোট আট খÐে মৈমনসিং গীতিকা ও পূর্ববঙ্গ গীতিকা এবং তার ইংরেজি আলোচনা ও অনুবাদ প্রকাশ করেন।

৳ 100.00 ৳ 80.00

In stock

Book Details

Weight .200 kg
Dimensions .3 × 5.5 × 8.2 in
Language

Binding Type

Publishers

Release date

Pages

Height

8.2

Width

5.5

About The Author

Rabindranath Tagore

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জন্ম : ২৫ বৈশাখ ১২৬৮/ ৭ মে ১৮৬১; মৃত্যু ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ / ৭ আগস্ট ১৯৪১ ॥ জন্ম ও মৃত্যু : কলকাতায় জোড়াসাঁকেfর পৈতৃক বাড়িতে। বিস্ময়কর ও সর্বগ্রাসী প্রতিভাধর বাঙালি এই কবির নানা অভিধা : কবি : দার্শনিক ॥ শিক্ষাবিদ ॥ গীত-রচয়িতা ॥ সুরকার ॥ কণ্ঠশিল্পী ॥ নাট-প্রহসন-রচয়িতা ॥ অভিনেতা ॥ ঔপন্যাসিক ॥ গল্পকার ॥ প্রবন্ধকার ॥ পত্রিকা-সম্পাদক ॥ চিত্রশিল্পী ॥ কৃষি-উদ্ভিদবিদ্যা-বিজ্ঞানবিষয়ক রচনকার ॥ সমবায়-কৃষিব্যাংক ধারণার প্রবর্তক ॥ সমাজসংস্কারক ॥ পর্যটক। বিপুল রচনাসম্ভারে রয়েছে কবিতাগ্রন্থ (গান ও কাব্যনাট্য বাদে) : ৬৫টি। গান : প্রায় ২ হাজার ৫ শো ॥ ছোটগল্প ১১৯টি ॥ উপন্যাস ১৩টি। নাটক (কাব্যনাট্য-পদ্যনাটক-নৃত্যনাট্য-প্রহসন) : ৫০টি ॥ ভ্রমণকাহিনী : ৯টি ॥ শিশুসাহিত্য : ৯টি। চিত্রকলা : প্রায হাজার ॥ দেশ-বিদেশে অনেকবার চিত্রপ্রদর্শনী হয়, যেমন প্যারিসে (১৯৩০), বোম্বাইয়ে (১৯৩৩)। বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশেরই জাতীয়-সংগীত-রচয়িতা। এশিয়ার প্রথম বাঙালি নোবেল-পুরস্কার-বিজয়ী। গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের জন্য এ পুরস্কার লাভ : ১৩ নভেম্বর ১৯১৩। পেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়িক সম্মান : অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় (হিবার্ট বক্তৃতা ১৯৩০, ডি. লিট উপাধি ১৯৪০) ॥ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ববিদ্যালয় (ডি. লিট. উপাধি ১৯১৩, জগত্তারিণী স্বর্ণপদক ১৯২১, কমলা বক্তৃতা ১৯৩৩, রামতনু লাহিড়ী অধ্যাপক ১৯৩২-৩৪) ॥ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ডি. লিট. উপাধি ১৯৩৬) ॥ ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় (ডি. লিট. উপাধি ১৯৩৮) ॥ হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়, কাশী (ডি. লিট. উপাধি ১৯৩৫) ॥ অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয় (কৃষ্ণস্বামী বক্তৃতা ১৯৩৩)। জমিদারি তদারকিতে বাংলাদেশে শিলাইদহ, সাজাদপুর ও পতিসরে অবস্থান : প্রধানত উনবিংশ শতাব্দির শেষ দশক এবং অনিয়মিতভাবে বিংশ শতাব্দির প্রথম ও দ্বিতীয় দশক।

ঢাকায় আগমন : এক প্রাদেশিক সম্মেলনে যোগদান (১৮৯৮) ॥ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তৃতাদান (১৯২৬)।

শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মচর্যাশ্রম প্রতিষ্ঠা : ডিসেম্বর ১৯০১।

শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী প্রতিষ্ঠা : ১৯২১।

শ্রীনিকেতনে পল্লিগ্রাম পুনর্নির্মাণ শিক্ষালয় প্রতিষ্ঠা : ১৯২২।

বঙ্গভঙ্গের প্রতিবাদ : ১৯০৫।

জালিয়ানওয়ালাবাগে হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে নাইটহুড (স্যার) উপাধি প্রত্যাখ্যান : ১৯১৯।

নোবেল পুরস্কারের টাকা পতিসরে কৃষিব্যাংক প্রতিষ্ঠা ও অন্যান্য জনহিতকর কাজে ব্যয় করেন

রবীন্দ্রনাথের বিশাল সৃষ্টিভুবন থেকে
বিষয়ানুগ আগ্রহী পাঠকের জন্য
শতাধিক বইয়ের সমাহার—
পাঠক সমাবেশ-এর নিবেদন :
পাঠক সমাবেশ রবীন্দ্রচিঠি গ্রন্থমালা

বর্তমান গ্রন্থে (গ্রন্থমালা ৪) সংকলিত হল
দীনেশচন্দ্র সেনকে লেখা রবীন্দ্রচিঠি।
অন্তর্ভূত চিঠিসংখ্যা : ৫৬

চিঠির বিষয় : অধ্যাত্ম, অনুবাদ প্রসঙ্গ, অর্থনৈতিক প্রসঙ্গ (অর্থসংকট, অর্থসংগ্রহ, ব্যবসায়িক), নিজ জীবন (দুঃখ আঘাত), নিজ রচনা (ইংরেজি ভাষা, উপন্যাস, ভাষান্তর, সমালোচনা), প্রকাশনা/সম্পাদনা, শান্তিনিকেতন, শিক্ষা প্রসঙ্গ (উচ্চশিক্ষায় বাংলা), জাতীয় শিক্ষক, সমকাল (রাজনীতি), সমাজ (সংসার), সাহিত্যভাবনা (কবিতা, প্রাচীন সাহিত্য, ভাষা), স্বদেশ, স্বদেশি আন্দোলন ইত্যাদি।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “রবীন্দ্রচিঠি গ্রন্থমালা ৪”

Your email address will not be published. Required fields are marked *